Home / সারাবাংলা / দলিত পরিচ্ছন্নতা কর্মীদের করোনাকালে স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিত করার দাবীতে বিডিইআরএম এর মানববন্ধন

দলিত পরিচ্ছন্নতা কর্মীদের করোনাকালে স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিত করার দাবীতে বিডিইআরএম এর মানববন্ধন

 

অনলাইন ডেস্ক- দলিত পরিচ্ছন্নতা কর্মীদের করোনাকালে স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিত করার দাবীতে আজ ১১ জুলাই ২০২০ (শনিবার) সকাল ১১.০০ টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। বাংলাদেশ দলিত ও বঞ্চিত জনগোষ্ঠী অধিকার আন্দোলন (বিডিইআরএম) কর্তৃক আয়োজিত এ মানববন্ধনে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনটির সভাপতি মনি রানী দাস।

মানববন্ধনে প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি)’র সম্পাদক জনাব রুহিন হোসেন প্রিন্স। বিশেষ বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিডিইআরএম এর উপদেষ্টা জনাব জাকির হোসেন, বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়নের সাবেক সভাপতি মানবেন্দ্র দেব। বিডিইআরএম এর ছাত্র ও যুব বিষয়ক সম্পাদক শিপন কুমার রবিদাস এর সঞ্চালনায় এসময় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বিডিইআরএম সচিবালয়ের সমন্বয়কারী এবিএম আনিসুজ্জামান, বিডিইআরএম এর সাংগঠনিক সম্পাদক ভীম্পাল্লী ডেভিড রাজু, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক কৈলাশ রবিদাস, নীলফামারী জেলা শাখার সভাপতি শাওন ভুইমালী।

প্রধান বক্তা জননেতা রুহিন হোসেন প্রিন্স বলেন, দলিত পরিচ্ছন্নতা কর্মীদের অরক্ষিত রেখে কোনভাবেই বাংলাদেশ করোনা ভাইরাস থেকে সুরক্ষিত থাকতে পারবে না। তিনি দলিত ও চা জনগোষ্ঠীর স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিতের পাশাপাশি সরকারকে পরিচ্ছন্নতা কর্মীদের আর্থিক প্রণোদনা প্রদান করারও দাবী জানান।

বিশেষ বক্তা জনাব জাকির হোসেন বলেন, স্বাস্থ্য অধিদপ্তর দেরিতে হলেও পরিচ্ছন্নতা কর্মীদের অবদানের বিষয় স্বীকার করে তাদেরও স্বাস্থ্য কর্মীর সমমর্যাদায় আসীন করেছেন। এজন্য তিনি সরকারকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। তিনি এসডিজি’র মূলমন্ত্র ‘কাউকে পেছনে ফেলে নয়’ এর ভিত্তিতে সর্বাগ্রে দলিতদের স্বাস্থ্য সুরক্ষা ও তাদের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের বিষয়টি গুরুত্বের সাথে বিবেচনা করার উপর জোর দেন।

বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়নের সাবেক সভাপতি মানবেন্দ্র দেব বলেন, সারাদেশে করোনা ভাইরাসে এ পর্যন্ত ৪৩ জন পরিচ্ছন্নতা কর্মী আক্রান্ত ও ১২ জনের মৃত্যু হয়েছে। তিনি করোনকালে এই সম্মুখসারির যোদ্ধাদের স্বীকৃতি ও প্রয়োজনীয় প্রণোদনা প্রদানের জন্য সরকারের নিকট দাবী জানান।

সমাপনী বক্তব্যে বিডিইআরএম এর সভাপতি মনি রানী দাস বলেন, সারাদেশে দলিত পরিচ্ছন্নতা কর্মীদের বসবাসের জায়গা খুবই সংকীর্ন। ফলে, দলিতদের করোনায় আক্রান্ত হবার আশঙ্কা বেশি। একজন আক্রান্ত হলে পুরো কলোনী বা ঐ এলাকা সংক্রমিত হবার সম্ভাবনা থাকে। আইসোলেশনে থাকবার মতো পর্যাপ্ত জায়গা নেই দলিত কলোনীগুলোতে। ফলে, আমরা মূলস্রোত জনগোষ্ঠীর তুলনায় বেশি ঝুঁকিতে আছি। সারাদেশে সিটি কর্পোরেশন ও পৌরসভাসহ হাসপাতালগুলোতে কর্মরত দলিত পরিচ্ছন্নতা কর্মীদের স্বাস্থ্য সুরক্ষা ও রেশন নিশ্চিত করার দাবী জানান তিনি।

Check Also

লক্ষ্মীপুরে প্রধানমন্ত্রীর ঘর পেল মুক্তিযোদ্ধা 

সোহেল হোসেন লক্ষ্মীপুর জেলা প্রতিনিধি :  লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার দত্তপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) তিনবারের সাবেক …