Home / জাতীয় / ‘পাখি বাঁচাও, পরিবেশ বাঁচাও’ শ্লোগানকে সামনে রেখে- ভালুকায় পাখির প্রতি ভালোবাসা

‘পাখি বাঁচাও, পরিবেশ বাঁচাও’ শ্লোগানকে সামনে রেখে- ভালুকায় পাখির প্রতি ভালোবাসা

ভালুকা(ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি : ভালুকায় ‘পাখি বাঁচাও, পরিবেশ বাঁচাও’ শ্লোগানকে সামনে রেখে চলছে পাখির বাসা বাঁধার কাজে। এ উদ্যোগের মূলে রয়েছেন ভালুকা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাসুদ কামাল। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা উদ্যোগ বাস্তবায়ন করছে উপজেলার স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ‘অভ্যুদয়’-এর সদস্যরা সহযোগীতা করছেন এলাকার পাখি প্রেমীরা। এ ল্েয তারা পাখির জন্য গাছে গাছে বাসা তৈরি করে দিচ্ছেন। এরই ধারাবাহিকতায় গতকাল উপজেলার হবিরবাড়ী ইউনিয়নের বিভিন্ন স্থানে গাছে পাখির বাসা হিসেবে হাড়ি বাঁধার কর্মসূচি পালিত হয়। এ সময় ইউপি চেয়ারম্যান তোফায়েল আহাম্মেদ বাচ্চু, হবিরবাড়ী ইউ: যুবলীগের সাধারন সম্পাদক হানিফ মোহাম্মদ নিপুণ, আলমদিনা শপিং কমপ্লেক্সের সভাপতি মাহমুদুল হাসান মৃধা রাসেল, কবি সফিউল্লাহ আনসারী, অভ্যূদয় সভাপতি আসাদুজ্জামান সুমন, ইউপিসদস্যগন ও সংগঠনের সদস্যরা উপস্থিত থেকে এ কাজের সহায়তা করেন।
গত ৪ আগস্টে শুরু হওয়া এ কর্মসূচির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেছিলেন ময়মনসিংহ জেলা প্রশাসক মিজানুর রহমান। সংশ্লিষ্ঠ সূত্রে জানা গেছে, পাখির বংশবিস্তার, জীববৈচিত্র্য ও পরিবেশের ভারসাম্য রায় পাখিদের বাঁচাতে এ ব্যতিক্রমী কাজের উদ্যোক্তা ভালুকা উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা মাসুদ কামালের আহ্বানে মহৎ কাজটি স্বেচ্ছাশ্রমের ভিত্তিতে বাস্তবায়নের করে চলেছে অভ্যূদয়ের সদস্যরা। তারা উপজেলার বিভিন্ন স্থানে গাছের ডালে ডালে মাটির হাঁড়ি বাঁধছেন। তাদের এই মহতি কাজেকে সাধুবাদ জানিয়ে বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ এ কাজের সহযোগী হয়ে কাজ করছেন।
সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত উপজেলার একটি পৌরসভাসহ বিভিন্ন ইউনিয়নে ২৭ দিনে ছয় হাজার পাখির নিরাপদ আবাসন স্থাপন কার্যক্রম এরই মধ্যে সম্পন্ন করেছেন তারা। পর্যায়ক্রমে তারা উপজেলার বাকি ইউনিয়নে এ কার্যক্রম পরিচালনা করবে বলে জানা গেছে।
অভ্যূদয়ের সভাপতি আসাদুজ্জামান সুমন বলেন, ‘দিন দিন আমাদের দেশ পাখিশূন্য হয়ে পড়ছে। বিষয়টি আমাদের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাসুদ কামাল উপলব্ধি করতে পেরেছেন। এটা অত্যন্ত মহৎ ও প্রশংসনীয় একটি উদ্যোগ। আমরা অভ্যূদয়ের স্বেচ্ছাসেবীরা আনন্দের সঙ্গেই কাজটি করছি। পাখির জন্য কিছু করতে পেরে নিজেদেরও খুব গর্বিত মনে করছি। এরই মধ্যে আমাদের স্থাপনকৃত হাঁড়িতে পাখিরা বাসা বাঁধতে শুরু করেছে। ’
কবি-শিক্ষক সফিউল্লাহ আনসারী বলেন, দেশে পরিবেশের ভারসাম্য রায় পাখির গুরুত্ব অপরিসীম। কিন্তু বৃক্ষ নিধনে গৃহহীন হয়ে পাখিকূল আজ বিপন্নের পথে। আমরা এ উদ্যোগকে সাধুবাদ জানাই।
উদ্যোগের উদ্যোক্তা নির্বাহী কর্মকর্তা মাসুদ কামাল বলেন, ‘দিন দিন আমাদের দেশের বন-জঙ্গল মারাত্মকভাবে উজাড় হচ্ছে। এতে দেশ দিন দিন পাখিশূন্য হয়ে পড়ছে। পাখির বংশবিস্তার, জীববৈচিত্র্য ও পরিবেশের ভারসাম্য রা করা আমাদের সবার দায়িত্ব ও কর্তব্য। পাখি আমাদের জন্য উপকারী হলেও অবহেলিত একটি জীব। তাই গোটা উপজেলার জঙ্গলে জঙ্গলে ও নির্জন স্থানে পাখিদের নিরাপদ আবাসস্থল স্থাপনের পরিকল্পনা করেছি। আমার আহ্বানে কঠিন এ কাজটি বাস্তবায়নে সহযোগিতা করছেন স্থানীয় স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন অভ্যুদয়। সহযোগীতা করছেন এলাকাবাসীও।

Check Also

এপেক্স ক্লাব অব ভালুকা (ইউসি)এর আত্ম প্রকাশ

ভালুকা( ময়মনসিংহ )প্রতিনিধি : আন্তর্জাতিক সেবা সংগঠন এপেক্স ক্লাব অব ভালুকার যাত্রা শুরু করেছে। এ …

Leave a Reply