Breaking News

রকিব লিখন‘র দুটি কবিতা

বিষ যে খায় আত্মহত্যা সেই করে

তোমার জন্য হৃদয় ক্ষয়ে ক্ষয়ে রক্তস্নাত সুমদ্র হলেও তোমাকে বলবো না আমি আর কষ্ট নিতে পারছি না এই বুকে ঢেউ ভাঙ্গার খেলায় আমি এক মৃত বৃক্ষ অনট দাঁড়িয়ে থাকা ছাড়া আমার আর কোন পথ নাই। তুমি সুদূর কোন প্রকৃতি যা নীলাকাশে নীলাচল আমার ব্যথিত বুকের আর্তনাদ তোমার নিকট হয়তো যাবে না মিশে যাবে প্রকৃতির আসরে নির্জন কোলাহলে… বোধ আর বোধনের স্মিত বাক্যে শুধু জানলাম বিষ যে খায় আত্মহত্যা সেই করে।
তুমি আমার দেহের কুরআন সত্যতারই আযান আমার বুকের জমিনে তর্জনি রেখে বলো “ভালোবাসি” বিশুদ্ধ ভায়োলিনে বাজুক রোদ ভেজা পড়ন্ত বিকেল অশুদ্ধ শব্দচারী হয়ে উঠুক দুর্মর কবিতার নিস্বান সুর বিষন্ন ক্যাকটাসে ফুটুক রবীন্দ্র সঙ্গীতের উদ্দাম মেঘ ভোর ভোর চোখ তুলে অবাক পৃথিবী দেখুক তোমায় নীল আর আবীরের ব্যবধানে তোমার রূপের থান আধবোলা শিশুর মতো বোলবোলে বলুক পৃথিবী আমিও মাঝি হবো তোমার সুর আর ক্রন্দরের গীতে তখনো আমি নাবিক; তুমি শুধু বিশুদ্ধ কর তর্জনি বুকে রেখে একবার বল ঘুম ভাঙ্গা পৃথিবী শুনুক আযানের সুরের মতন বিশুদ্ধ প্রতীকী উচ্চারণে তর্জনি রেখে আমার হিম ধরা বুকে “ভালোবাসি” ভায়োলিন থেকে হ্যামোলিন হয়ে বিশুদ্ধ কোরাসে বাতাসের গুঞ্জরণে সমর সঙ্গীতে জাগাবো পিয়াসি সুর বিশ্বলোক মন্থিত হবে দৃঢ় উচ্চারণের তিয়াসি গানে “তুমি আমার দেহের কুরআন, সত্যতারই আযান”।

Check Also

এরশাদ আহমেদ’র ছড়া- সূর্যি উঠা