Breaking News

মুঈন হুদা‘র দু‘টি কবিতা

 

মহামারী করোনাকাল

বুঝি না, এ কেন এমন করে এল- সকলের চক্ষুশূল মহামারী করোনাকাল; প্রতিদিন রুটিন অফিস নানান কাজ সবি চলছিল ভাল অন্নসুখে দিন গুজরান।
পাথর সময় কাজহীন এখন মনে পড়ে বার বার- তোমার আমার ফেলে আসা দিন; ছিল কত শত মান অভিমান- হাসি আনন্দ আর বেদনার গান; সময়ের স্রোতে ভেসে যেতে যেতে সকলি হয়েছিল নীল জলে ¤¬ান।
অলস সময় প্রতিদিন অফুরান বহুদূরে ঝিঁ ঝিঁ পোকার একটানা গান; স্মৃতির জাবরে কেন যে আজি- হৃদয়ের গহীন কোটরে জেগে ওঠে মুছে যাওয়া বেদনার সেই অব্যর্থ বাণ।

প্রত্যাশা

একদিন ছায়া হবে খররোদে পড়বে অঝোর বৃষ্টি; দাঁড়কাক ভিজে ভিজে ফিরবে ঘরে। অযুত স্বপ্নের সাথী কল্যাণী মোর যোদ্ধা সৈনিকের ন্যায় জয়ী হয়ে হাসবে তুমুল। আমার আমদের নিশ্চিত সুদিন আসবে কষ্টের কালো দাগ সব মুছে যাবে; ভোরের সূর্যের মতো শান্তির বার্তা নিয়ে ফোটে ওঠবে প্রসন্ন অর্কিড। স্বদেশ আপন আলোয় যখন উদ্ভাসিত হবে তখন ভয়ার্ত চিৎকার, উদ্যত হাত, হায়নার থাবা মুছবে, মুছে যাবে। হিরন্ময় রোদ ওঠবে হেসে। চালশের ঘোর কেটে পরম শ্রদ্ধায়- গর্বে, মুখে বলবে সবে পূর্ব পুরুষের নাম।

Check Also

এরশাদ আহমেদ’র ছড়া- সূর্যি উঠা