Breaking News
Home / সাহিত্য / আমারবাংলা ভার্চুয়াল সংখ্যা -২০২০ / আসিফ খন্দকার‘র দু’টি কবিতা

আসিফ খন্দকার‘র দু’টি কবিতা

ভাবপেয়ালা

ভাল্লাগেনা কেমন জানি উদাস লাগে মন মনের ভিতর বিরূপ হাওয়ায় হচ্ছি উঢ়াটন এমন কেন লাগছে মনে মনকে বলি শোন্ আমি তো আর নই গো কবি নির্মলেন্দু গুন, বুকের ভিতর হেলাল হাফিজ দুঃখ করে ফেরী রবীন্দ্রনাথ চোখের পরে সঙ্গে সোনার তরী মধুসুদন দাঁড়িয়ে আছে হৃদয়াক্ষের তীরে তাঁদের মতো আমার কেন নীড় জোটেনা নীড়ে। হাফিজ-রুমি শরাব ঢালে ভাবপেয়ালা জুড়ে বুকের ভিতর সানাই বাজে বিসমিল্লার সুরে চৌরাসিয়ার বাঁশির মতো পরান কাঁদে রোজ ফেরদোসিকে স্বপ্নে কেন করছি নিতি খোঁজ? লালন- হাসন কেমন জানি দেখতে লাগে শখ বুকের ভিতর পাগলা কানাই রোজ করে বকবক।

জীবন

এক জীবনে হয় না পাওয়া সকল আশার দেখা তাই ঘটে যা বিধির হাতের অমোখ বিধান লেখা, জীবনটা তো স্মৃতির মালা দুখের জীয়ন কাঠি যতই তারে গুছাও সেতো হয় না পরিপাটি, জীবন মানে আশার তরী সুখের ছবি আঁকা মুচকি হেসে ঠোঁটের কোণে দুঃখ গুলো ঢাকা। জীবন মানে চলতে থাকা অনন্ততে যাবার জীবন মানে সাধন ভজন অদেখাকে পাবার, কিংবা জীবন কিচ্ছুটি নয় জীবন শুধু প্রাণের জীবন মানে জীবের তরে আপন আত্মদানের, জীবন মানে সূর্য পানে দুচোখ মেলে রাখা মরণটাকে বরণ করে নেবার আশায় থাকা।

Check Also

এরশাদ আহমেদ’র ছড়া- সূর্যি উঠা