Breaking News
Home / সাহিত্য / আমারবাংলা ভার্চুয়াল সংখ্যা -২০২০ / চন্দনকৃষ্ণ পাল‘র এর দুটি কবিতা

চন্দনকৃষ্ণ পাল‘র এর দুটি কবিতা

এই সব বিষন্নতা নিয়ে

শব্দ সাজানো থেমে গেলে শূন্য থাকে কাগজের বুক অন্তমিল ছুটি নেয়,ছুটি নেয় শব্দের ঢেউ মাত্রারা নির্দিষ্ট দূরত্বে থাকে নিজেদের মতো আর আমি ঘোলা দৃষ্টি মেলে দেখি এই শূন্য চরাচর.., বনরূপায় নেই বায়ূসেবী আর টুং টাং থেমে গেছে বড় রাস্তায় বিষন্ন স্রোতে ভাসে বাউনিয়া খাল উৎসবের সাজ সজ্জা থেমে গেছে মধ্য চৈত্রেই পহেলা বৈশাখ আজ চোখ মুছে বিষন্ন রুমালে। তোমার আঁচল আর উড়ে না তো বিকেলের কমলা আভায় ওখানেও বিষন্নতা নিয়ে আজ থমকে আছে এক নীল বেলকনি!

পৃথিবী উৎসবে মাতে

দিন চলে যায় অবলীলায় স্বপ্নরা সব পাখা মেলে আকাশ ছুঁবে নীল মাখবে হাতের কাছে তাকে পেলে হাসি আমি ভাবনা দেখে স্বপ্ন দেখা ভালো জানি স্বপ্ন থেকে সৌধ হবে, হতে পারে তাও তো মানি কিন্তু জেনো সেই স্বপ্নের ভিত্তিটুকু থাকতে হবে তবে স্বপ্ন সফল হবে মাতবে সবাই মহোৎসবে হাওয়ায় ভেসে স্বপ্ন দেখা, থাকবে পড়ে শূণ্য শুধু অথই সাগর দেখবে চোখে কিংবা বিশাল মরুর ধু ধু বাস্তবের এই শক্ত ভিতে নেমে এসো প্রিয় সুজন সবুজ দেখো নীল হাতড়াও শ্রবণ করো পাখির কূজন প্রাণটি খুলে দাও না হাসি হাসুক আকাশ তোমার সাথে হাসলে তুমি উৎসব হয়, পৃথিবী উৎসবে মাতে!

Check Also

এরশাদ আহমেদ’র ছড়া- সূর্যি উঠা