Home / অর্থনীতি / গফরগাঁওয়ে স্বপ্ন দেখাচ্ছেন খামারি সুলভ ফরাজী

গফরগাঁওয়ে স্বপ্ন দেখাচ্ছেন খামারি সুলভ ফরাজী

 

অনলাইন ডেস্ক- স্বপ্ন এবং চেষ্টা সফলতার পথ দেখায়। সেই লালিত স্বপ্নকে বাস্তবে রূপ দিতে পরিশ্রমের বিকল্প নেই’- কথাগুলো সুলভ ফরাজীর।
মনসিংহের গফরগাঁওয়ে তরুণ উদ্যোক্তা ছাত্রলীগকর্মী সুলভ ফরাজীর ছাগল খামার ও অল্প পুঁজিতে ব্যাপক সাফল্য শত বেকার তরুণ-যুবককে সাফল্যের পথ দেখাচ্ছে। ২০১৭ সালে ৫০ হাজার টাকা পুঁজি নিয়ে মাত্র পাঁচটি ছাগী নিয়ে বাড়ির উঠানে শুরু হয় ‘ফরাজী ছাগল খামার’। ৪০টি ছাগল বিক্রি করেও বর্তমানে সুলভের খামারে রয়েছে বিভিন্ন জাতের ৬০টি ছাগল। সুলভের সহায়তায় এ পর্যন্ত উপজেলার বিভিন্ন এলাকার প্রায় ৫০ জন তরুণ-যুবক ছাগল পালন শুরু করেছেন। অনেকে উদ্যোগী হওয়ার স্বপ্ন দেখছেন।
উপজেলার পাগলা থানাধীন লংগাইর ইউনিয়নের মাইজবাড়ি দাখিল মাদরাসার সহকারী শিক্ষক আব্দুল মোমেন ফরাজীর ছেলে সুলভ ফরাজী ময়মনসিংহ আনন্দমোহন কলেজের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিষয়ে মাস্টার্সের শিক্ষার্থী। পড়ালেখার পাশাপাশি সুলভের এই কর্মযজ্ঞ এলাকায় ব্যাপক আলোড়ন সৃষ্টি করেছে। এ ছাড়া সুলভ ভালো একজন আবৃত্তিশিল্পী। এলাকার সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান মানেই সুলভের উপস্থিতি।
সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, সুলভ ফরাজী ২০১২ সালে এসএসসি পরীক্ষা দিয়ে রেজাল্টের অপেক্ষা না করে বগুড়া আরডিএ একাডেমি থেকে ‘আধুনিক পদ্ধতিতে গরু মোটাতাজাকরণ ও ডেইরি ব্যবস্থাপনা’ বিষয়ে বিশেষ প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেন। ২০১৪ সালে এইচএসসি পরীক্ষা দিয়ে ব্র্যাক কৃত্রিম প্রজনন এন্টারপ্রাইজের অধীনে সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভেটেরিনারি অ্যান্ড হিস্টোলজি ও ডেইরি অ্যান্ড ফিজিওলজি থেকে দুই মাস মেয়াদি বিশেষ প্রশিক্ষণ গ্রহণ করে ইউনিয়ন কৃত্রিম প্রজনন সার্ভিস প্রভাইডার পদে কাজ শুরু করেন। ২০১৯ সালে সরকারের লাইভস্টক অ্যান্ড ডেইরি ডেভেলপমেন্ট প্রজেক্টে কাজ শুরু করেন। এ সময় তিনি ‘ফরাজী ফ্যাটেনিং অ্যান্ড ডেইরি ফার্ম’ নামে একটি প্রতিষ্ঠান করে ছাগল পালন, ছাগলের চিকিৎসা ও উন্নত প্রজনন নিয়ে কাজ করতে থাকেন। একই বছর এলাকার তরুণ উদ্যোক্তাদের নিয়ে ‘আমরা কৃষি উদ্যোক্তা’ নামে একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন গড়ে তোলেন। এই সংগঠনের উদ্যোগে বিনা মূল্যে আশপাশের তিনটি ইউনিয়নের প্রায় দুই হাজার ছাগলের মহামারি পিপিআর রোগের ভ্যাকসিন প্রয়োগ করা হয়।

সুলভ ফরাজীর ছাগল খামার দেখে ও উদ্বুদ্ধ হয়ে উপজেলার লংগাইর, টাঙ্গাব, উস্থি, পাঁচবাগ, গফরগাঁও, বারবাড়িয়া, পৌরসভাসহ বিভিন্ন ইউনিয়নের প্রায় ৫০ জন বেকার তরুণ-যুবক ছাগল পালন শুরু করেছেন। এমনকি ছাত্রলীগের অনেক নেতাকর্মীও সুলভের খামার দেখে ও কথা বলে ছাগল পালনে আগ্রহী হয়ে উঠছেন।

সুলভ ফরাজী বলেন, ছাগল পালন খুবই লাভজনক। যে কেউ উদ্যোগী হয়ে অল্প পুঁজি ও শ্রমে সফলতার স্বপ্ন দেখতে পারেন। উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শরিফুল ইসলাম বলেন, ছাত্রলীগকর্মী সুলভ ফরাজীর খামার আমি দেখেছি। অত্যন্ত লাভজনক। আমি ছাড়াও অনেক ছাত্রলীগ নেতাকর্মী সুলভের ছাগল খামার দেখে নিজেরা করার কথা ভাবছেন। স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল আমিন বিপ্লব বলেন, সুলভ ফরাজী নিজেই শুধু সাফল্যের স্বপ্ন দেখছে না। আমার ইউনিয়ন ছাড়াও বিভিন্ন এলাকার শত তরুণ-যুবকের স্বপ্ন রচনা করেছে।

Check Also

ভালুকায় জাতীয় উৎপাদনশীলতা দিবসে আলোচনা সভা

ভালুকায় জাতীয় উৎপাদনশীলতা দিবসে আলোচনা সভা ভালুকা প্রতিনিধি: ‘অপ্রতিরোধ্য অগ্রযাত্রায় উৎপাদনশীলতা’ প্রতিপাদ্য বিষয়কে সামনে নিয়ে …