Breaking News
Home / সারাদেশ / ময়মনসিংহ / ভালুকা এলজি বাটারফ্লাই কোম্পানিতে শ্রমিককে মারপিট করে গুরুতর আহত করেছে কর্মকর্তারা

ভালুকা এলজি বাটারফ্লাই কোম্পানিতে শ্রমিককে মারপিট করে গুরুতর আহত করেছে কর্মকর্তারা

 

 

-জহিরুল ইসলাম জুয়েল-
ময়মনসিংহের ভালুকা উপজেলার মামারিশপূর এলাকায় অবস্থিত এলজি বাটারফ্লাই কোম্পানিতে এলবিম সংমা (২৫)নামে এক শ্রমিককে মানব সম্পদ বিভাগের ৪কর্মকর্তা মিলে রুল দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে আটকিয়ে রাখে বলে অভিযোগ ওঠেছে। পুলিশ গিয়ে আহত শ্রমিককে কোম্পানির ভিতর থেকে মঙ্গলবার রাতে উদ্ধার করে।
সূত্রে জানাযায়,উপজেলার মল্লিকবাড়ি গ্রামের বাসিন্দা অমৃত মারাকের ছেলে এলবিম সংমা গত ৬মাস পূর্বে এলজি বাটারফ্লাই কোম্পানিতে শ্রমিক হিসাবে যোগদান করেন। ফ্রিজের লাইন কেটে ফেলার অভিযোগে গত মঙ্গলবার(১৬জুন) বিকালে কোম্পানির মানব সম্পদ বিভাগের ৪কর্মকর্তা হাসিব উজ্জামান,আসিব,শামীম ও রানা মিলে এলবিম সংমাকে তাঁর সেকশন থেকে ডেকে নিয়ে কোম্পানির দুতলার একটি রুমে আটকিয়ে কাঠের মোটা রোল দিয়ে বিকাল ৫টা থেকে ৬টা পর্যন্ত বেধরক মারপিট করেন। মারপিট করে তাঁকে একটি কক্ষে আটক করে রাখেন। সেখান থেকে এলবিম সংমা মোবাইলে তাঁর পরিবারের লোকজনের সাথে যোগযোগ করলে। এলবিম সংমা’র বাবা ও মা ভালুকা মডেল থানা এস,আই রুহুল আমীনের সহযোগীতায় রাত ৮টার দিকে সেখান থেকে উদ্ধার করা হয়। আহত এলবিম সংমা ভালুকা সরকারী হাসপাতাল থেকে চিকিৎসা দেয়া হয়।
এলবিম সংমা জানান, আমি কোম্পানির কোনো ফ্রিজের ক্ষতি করিনি। হাসিব উজ্জামান,আসিব,শামীম ও রানা মিলে পর্যায়ক্রমে ১ঘন্টা আমাকে রুল দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর জখম করে মোবাইলে স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দি নেন। আমার বাবা মা কোম্পানিতে যাওয়ার পর তারা তাদের কাছে ৭লাখ টাকা জরিমানা দাবি করে।
এলজি বাটারফ্লাই কোম্পানির কর্মকর্তা হাসিবুজ্জামান জানান,এলবিম সংমা আমাদের কোম্পানির ৭/৮টি ফ্রিজ ফুটু ও লাইন কেটে ফেলেছে।
ভালুকা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ মাঈন উদ্দিন জানান, আহত শ্রমিক থানায় অভিযোগ নিয়ে আসলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

Check Also

ভালুকায় ট্রাক চাপায় র‌্যাব-১ এর সদস্য নিহত

ভালুকা (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধিঃ ময়মনসিংহের ভালুকায় গাঁজার চালান উদ্ধার করতে গিয়ে ট্রাক চাপায় র‌্যাব-১ এর গাজীপুর …